জন্ম নিবন্ধন সম্পর্কে বিস্তারিত | জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব

একটি শিশু পৃথিবীতে আগমনের পর রাষ্ট্র থেকে যে প্রথম স্বীকৃতি দেওয়া হয় সেটিই জন্ম নিবন্ধন। জন্মনিবন্ধন একটি মানুষের নাগরিক অধিকার, জাতীয়তা নিশ্চিতকরণের প্রথম আইনগত ধাপ। ২০০৪ সালে প্রণীত এবং ২০০৬ সালে কার্যকর "জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন" আইন অনুযায়ী, বয়স, জাতি-গোষ্ঠী কিংবা ধর্ম নির্বিশেষে বাংলাদেশে জন্মগ্রহণকারী সকল মানুষের জন্য জন্ম নিবন্ধন করা বাধ্যতামূলক।
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব
আর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে বর্তমানে অনলাইন জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম চালু রয়েছে।যা ২০১০ সালে শুরু হয়েছে। আর এই প্রেক্ষাপটেই আমাদের সবার জন্য জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব,জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022,জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ ইত্যাদি জানা অত্যন্ত জরুরি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 এর মাধ্যমে আমরা এখন ঘন্টার পর ঘন্টা অফিসের বাইরে অপেক্ষা করা ছাড়াই খুব সহজেই জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে পারি।আর আজকের আর্টিকেলে আমরা জন্ম নিবন্ধন সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করব।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব জানতে আপনাকে প্রথমেই BRIS এর ওয়েবসাইটে যেতে হবে। জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব জানতে নিচের পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করুনঃ 

  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব এর জন্য প্রথমেই আপনাকে https://everify.bdris.gov.bd ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। এবার আপনি এরকম একটি ওয়েবপেজ দেখতে পাবেন।
https://everify.bdris.gov.bd
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব এর দ্বিতীয় ধাপে আপনার জন্ম নিবন্ধন কপিটি যাচাই করতে প্রথম খালি ঘরে আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদে থাকা ১৭ ডিজিটের জন্মনিবন্ধন নাম্বারটি টাইপ করুন। এরপরের খালি ঘরে আপনার জন্মসাল-মাস- তারিখ এভাবে সাজিয়ে জন্মতারিখ টাইপ করুন। অর্থাৎ কারো জন্ম ৩রা জুলাই ১৯৯৮ সালে হলে তিনি লিখবেন ১৯৯৮-৭-৩
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব এর জন্য আপনাকে ওই ওয়েবপেজের নির্দেশনা অনুযায়ী ছবিতে থাকা অঙ্কগুলোর যোগ বা বিয়োগফল লিখতে হবে।
  • এরপর search এ ক্লিক করলে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব এর জন্য আপনার সকল তথ্য নিচে দেওয়া স্ক্রিনশটের মতো প্রদর্শিত হবে।
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব এর নিয়ম অনুযায়ী এবার আপনি আপনার তথ্যগুলোর স্ক্রিনশট নিয়ে তা সংরক্ষণ করতে পারবেন।
  • যদি আপনি ভুল জন্মনিবিন্ধন নাম্বার বা জন্মতারিখ প্রবেশ করান তাহলে নিচের স্ক্রিনশটের মতো No Record Found লেখা আসবে।
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি
তাহলে আপনারা সবাই জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব এর উত্তর পেয়ে গেলেন। দেখলেন তো কত সহজেই আমরা জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব এর পদ্ধতি গুলো শিখে ফেললাম।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022

এখন আমরা শিখব জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022। অনলাইনে জন্মনিবন্ধন আবেদন করার সুবিধা সার পূর্বে আমাদের জন্মনিবন্ধন করতে দালাল ধরতে হত অথবা অফিসে গিয়ে অনেক সময় ধরে বসে থাকতে হত। এতো সব ভোগান্তির কারণে অনেকেই সময় মতো জন্ম নিবন্ধন করতে চাইত না।

আর এসব সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আমরা এখন খুব সহজেই অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করতে পারি। আর এজন্য আমাদের জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 সম্পর্কে অবশ্যই জানতে হবে। নিচে আমরা জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 সম্পর্কে বিস্তারিত জানবঃ

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 অনুযায়ী প্রথমেই আপনাকে কিছু প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র সংগ্রহ করতে হবে। এগুলো বয়স অনুযায়ী আলাদা হবে।

১. শিশুর জন্মের পর ৪৫ দিনের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন করে ফেলায় সবচেয়ে সহজ।এক্ষেত্রে আপনার যেসব কাগজ লাগবে সেগুলো হলঃ
  • ভ্যাক্সিন বা টিকা কার্ড
  • পিতা মাতার ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন সনদের কপি।(বাংলা এবং ইংরেজি দুটোয় আবশ্যক)
  • পিতা মাতার জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি
  • বাড়ির হোল্ডিং নাম্বার এবং চলতি বছরের ট্যাক্সের সনদ
  • পিতা মাতা / অভিভাবকের মোবাইল নাম্বার।
২. শিশুর বয়স ৪৬ দিন থেকে ৫ বছরের মধ্যে হলে যেসব কাগজপত্র লাগবেঃ
  • টিকা কার্ড / স্বাস্থ্য কর্মীর সিল ও স্বাক্ষর সহ প্রত্যয়ন পত্র।
  • আবেদনকারীর ১ কপি রঙীন পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • পিতা মাতার ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন সনদের কপি।(বাংলা এবং ইংরেজি দুটোই আবশ্যক)
  • পিতা মাতার জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি।
  • বাড়ির হোল্ডিং নাম্বার এবং চলতি বছরের ট্যাক্সের সনদ।
  • পিতা মাতা / অভিভাবকের মোবাইল নাম্বার।
৩. ৫ বছরের বেশী বয়সীদের জন্য যেসব কাগজপত্র আবশ্যক সেগুলো হলঃ
  • বিএমডিসি কতৃক রেজিস্টার্ড চিকিৎসক দ্বারা বসয় প্রমাণের প্রত্যয়নপত্র।
  • যেকোনো পাবলিক পরীক্ষা যেমন প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা বা পিএসসি, জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষা বা জেএসসি, মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষা বা এসএসসি, এইচএসসি এর সনদ পত্র বা সার্টিফিকেট
  • পিতামাতার অনলাইন জন্ম নিবন্ধন কপি (বাংলা এবং ইংরেজি)
  • পিতামাতার জাতীয়পরিচয় পত্র।
  • জন্মস্থান বা স্থায়ী ঠিকানা প্রমাণ করতে স্থায়ী আবাসস্থলটির বিপরীতে কর পরিশোধের প্রমাণপত্র দেখাতে হবে।এই আবাসস্থল পিতামাতা, পিতামহ - পিতামহী যেকারো নামেই থাকতে পারে।
  • যদি স্থায়ী ঠিকানা বিলুপ্ত হয়ে যায় তাহলে জমি বা বাড়ি ক্রয়ের দলিল,খাজনা ও কর পরিশোধ রশিদ ও গ্রহণযোগ্য হবে।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022

১. জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 অনুযায়ী এবার আপনার কম্পিউটার থেকে https://bdris.gov.bd/ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন। আপনি এরকম একটি ওয়েবপেজ দেখতে পাবেন।
https://bdris.gov.bd/
২. জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 অনুযায়ী উক্ত পেজের জন্ম নিবন্ধন অপশনটি সিলেক্ট করলেই নিচের ছবির মতো পেজ আসবে।
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022
৩. জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 মতে এবার আপনি আপনার জন্মস্থান / স্থায়ী ঠিকানা / বর্তমান ঠিকানার মধ্যে যেখান থেকে জন্মনিবন্ধন করতে চান সেটি সিলেক্ট করুন। এরপর পরবর্তী লেখা বাটনে ক্লিক করুন।

৪. এবার জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 অনুযায়ী আপনাকে এরকম একটি পেজে নিয়ে যাবে যেখানে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য সমূহ প্রদান করতে হবে।
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম
যদি আপনার নামের দুটি অংশ থাকে তাহলে প্রথম অংশটি নামের প্রথম অংশ লেখা ঘর টিতে বাংলায় এবং ইংরেজিতে লিখতে হবে। আর যদি আপনার নামে তিনটি অংশ থাকে তাহলে প্রথম অংশে নামের প্রথম দুটি অংশ এবং শেষ অংশে বাকি অংশটি বসাতে হবে।

১টি শব্দের নাম হলে সেটি শেষের ঘরে বসাতে হবে। এরপর সব তথ্য পূরণ শেষে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 অনুযায়ী পরবর্তী লেখা বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 এর পরবর্তী ধাপে এমন একটি পেজ আসবে।
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন
এখানে আবেদনকারীর পিতা মাতার ডিজিটাল জন্মনিবন্ধন নাম্বার, জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার এবং অন্যান্য তথ্য সঠিক ভাবে দিয়ে পরবর্তী লেখা বাটনে ক্লিক করতে হবে। 
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 এর এ পর্যায়ে আপনাকে নিচের ছবির মতো একটি পেজে নিয়ে যাবে।
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার
এখানে কোনটিই নয় অপশন সিলেক্ট করে পরবর্তী লেখা বাটনে ক্লিক করলে নিচের ছবির মতো পেজে নিয়ে যাবে যেখানে আপনি আপনার সঠিক ঠিকানা টাইপ করতে পারবেন।
জন্ম নিবন্ধন
  • যদি আপনার স্থায়ী ঠিকানা এবং জন্মস্থান একই হয় তাহলে উপরের লাল চিহ্নিত বক্স টিতে ক্লিক করতে হবে। একই কাজ করতে হবে যদি আপনার স্থায়ী এবং বর্তমান ঠিকানাও একই হয় তাহলে।
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 অনুযায়ী এর পর আপনাকে এরকম একটি পেজে নিয়ে যাবে।
জন্ম নিবন্ধন২০২২
এবার এখানে আপনি নিজে আবেদন করলে নিজ এবং আপনার কোনো অভিভাবক বা অন্য কেউ আবেদন করলে অন্যান্য সিলেক্ট করে অন্যান্য তথ্য গুলো যাচাই করে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  • জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 মতে সব ঠিকঠাক সাবমিট হলে আপনি জন্ম নিবন্ধনের আবেদন পত্র প্রিন্ট করতে পারবেন। এক্ষেত্রে এরকম ওয়েবপেজে সঠিক তথ্য দিয়ে প্রিন্ট অপশনটি সিলেক্ট করতে হবে।
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম ২০২২
  • তবে প্রিন্ট করার সময় খেয়াল রাখতে হবে যেন প্রিন্টটিতে হেডার এবং ফুটার ইনফরমেশনগুলো দেখা যায়। এজন্য প্রিন্ট করার সময় more settings এ ক্লিক করে headers and footers অপশনে ক্লিক করে প্রিন্ট করতে হবে। পেজটি দেখতে অনেকটা নিচের ছবির মতো হবে।
জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম ২০২২
এবার জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 করা আবেদন ফর্মটির প্রিন্টেড কপি এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে ইউনিয়ন/পৌরসভা/সিটি কর্পোরেশন অফিসে গিয়ে জমা দিন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 মেনে খুব সহজেই অনলাইনে ফর্ম পূরন করা যায়। এক্ষেত্রে শিশুর বয়স ৪৫ দিন পর্যন্ত কোনো ফি না লাগলেও ৫ বছর বয়স পর্যন্ত শিশুর জন্ম নিবন্ধন ফি ২৫ টাকা এবং ৫ বছরের উর্ধ্বে এই ফি ৫০ টাকা নির্ধারন করা হয়েছে। আশা করি সকলেই জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 খুব ভালভাবেই বুঝতে এবং শিখতে পেরেছেন।

জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২

বাংলাদেশের অনেক মানুষের জন্মসনদ ই ডিজিটাল করা নেই।তারা হাতে লেখা জন্ম সনদ দিয়েই তাদের বিভিন্ন কাজ করার চেষ্টা করেন। কিন্তু বর্তমান যুগে প্রায় সবকিছুই অনলাইন এবং ডিজিটাল সেবার অধীনে চলে যাওয়ায় জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করা একান্ত জরুরি হয়ে পড়েছে।

জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ জানা থাকলে খুব সহজেই এই কাজটি সম্পন্ন করা যায়। জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ অনুযায়ী আপনি যেমন অনলাইনে আবেদন করার মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করতে পারবেন তেমনি আপনি হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন সনদ ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে গিয়েও জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ নিয়ম অনুযায়ী অনলাইনে আবেদন করতে নিম্নোক্ত পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।
  • জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ অনুযায়ী প্রথমেই আপনার কম্পিউটার থেকে 
  • https://bdris.gov.bd/ ওয়েবসাইটে গিয়ে নিবন্ধন সনদ পুনঃমুদ্রণ লেখার উপর ক্লিক করতে হবে।
  • এ পর্যায়ে জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ অনুযায়ী হাতে লেখা জন্মসনদ থেকে জন্মনিবন্ধন নাম্বার এবং জন্মতারিখ দিয়ে সার্চ বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনার বিভিন্ন তথ্য দেখাবে এ তথ্যগুলো সঠিক হলে নির্বাচন করুন এ ক্লিক করে কনফার্ম করতে হবে।
  • এরপর জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ এর পরবর্তী ধাপে আপনার নিকটস্থ নিবন্ধকের কার্যালয়ের নাম, আবেদন কারীর তথ্য এবং ফোন নাম্বার সহ অন্যান্য তথ্য সঠিক ভাবে পূরণ করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  • জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ মতে এবার আপনার স্ক্রিনে যে আবেদন পত্রের নাম্বার দেখতে পাবেন তা মনে রাখতে হবে এবং আবেদন পত্র প্রিন্টে ক্লিক করতে হবে।
জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ এর শেষ ধাপে প্রিন্টকৃত আবেদন পত্রে স্বাক্ষর করে নিকটস্থ ইউনিয়ন বা পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশন অফিসে জমা দিতে হবে।
এবার আপনি ২-৩ কর্মদিবসের মধ্যেই পেয়ে যাবেন আপনার কাঙ্ক্ষিত ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন। এক্ষেত্রে আপনার কোনো ফি প্রদান করতে হবে না।

বর্তমানে জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ অত্যন্ত সহজ। এছাড়া আপনি নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশন অফিসে পুরাতন জন্ম সনদ নিয়ে গিয়ে যোগাযোগ করলেও পেয়ে যাবেন ডিজিটাল জন্ম সনদ।

জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ অনুযায়ী এক্ষত্রে তারা আপনার কাছ থেকে পুরাতন জন্ম নিবন্ধনের ফটোকপি নিবে। এরপর ২-৩ কর্মদিবসের মাঝে চেয়ারম্যান বা কাউন্সিলরের স্বাক্ষর সহ জন্ম নিবন্ধনের একটি ডিজিটাল কপি পেয়ে যাবেন আপনি।

জন্ম নিবন্ধন একটি শিশুর অধিকার। বর্তমান ডিজিটাল যুগে আমাদের সবার ই জন্মনিবিন্ধনের ডিজিটাল কপির প্রয়োজন পরে। তাই জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব,জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022, জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ এই তথ্যগুলো জানা আমাদের জন্য একান্ত জরুরি।

আপনাদের জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করব,জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022,জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করার নিয়ম ২০২২ ইত্যাদি সংক্রান্ত কোনো জিজ্ঞাসা থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url